বিশ্ব ইজতেমা আমাদের জন্য আল্লাহর বড় নিয়ামত

মাওলানা মাহফুজুল হক

আগামি কাল থেকেই শুরু হতে যাচ্ছে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম অংশ। এ অংশে ঢাকাসহ অনেক জেলার জমায়েত হবে টঙ্গীর ঐ তুরাগ নদীর তীরে। মুখে লা-ইলাহার জিকির আর অন্তরে দ্বীনের দাওয়াতের  অধম্য  স্প্রীহা নিয়ে  ইতোমধ্যে রওয়া হয়েছে তাবলীগের সাথীরা।

রাহমানিয়া  বরাবরই একাজে অংশগ্রহণ করে সকলের আগে। হযরত শাইখুল হাদিস রহ.  বলতেন- তাবলীগ  হলো জীবনের  মিশন। তাই  তিনি  আমরণ  দাওয়াতে তাবলীগকে  শুধু সমর্নই করতেন  না বরং  স্বীয়ং তিনি একাজে সময় দিয়েছেন এবং প্রতি বছর  শত কষ্ট সহ্য করে সেখানে উপস্থিত থাকতেন।   তারই সুযোগ্য উত্তরসূরি মাওলানা  মাহফুজুল দা.বা. তিনিও দাওয়াতের নিসবতে কয়েকবার চিল্লা ও তাবলীগে সময় দিয়েছেন এবং বতর্মানেও দিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি আজ রাহমানিয়ার ছাত্রদের হেদায়াতি বয়ানে বলেছেন- বিশ্ব ইজতেমা আমাদের জন্য আল্লাহর বড় এক নেয়ামত। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে লক্ষ লক্ষ আল্লাহর নেক বান্দারা এ ইজতেমায় অংশগ্রহণ করে।  দাওয়াতি কাজকে বেগবান করার  জন্য আলম ব্যাপী ফিকির হয়।  কাজেই সেখানে উপস্থিত হতে পারা সৌভাগ্যের বিষয়। তোমরা সেখানে তাদের উসূল ও নিয়ম-কানূন মেনে চলবে। এবং সেখন থেকে দাওয়াতি মেজাজ ও বড়দের গুলো নোট করে সেগুলো আমলে আনার চেষ্টা করবে।

ওখান থেকে আমলের জজবা ও প্রেরণা তৈরি করবে। তোমাদের সকল কাজ  যেনো অন্যের অনুকরনীয় হয়- কিছুতে মাদরাসার বদনা হতে দিবে না। ইত্যাদি বিষয়ে গুরুত্বপূণ হেদায়াত প্রদান করেন।

আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে বিশ্ব ইজতেমায় অংশগ্রহণ ও এ মহ’ত কাজে অংশগ্রহণ করার তাউফিক দান করুন। আমীন।

Share

Comments are closed.